বিডি প্রাইম ডেইলি
আন্তর্জাতিক

নওগাঁ-২ আসনে নৌকা জয়ী


দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থগিত হওয়া নওগাঁ-২ (ধামইরহাট-পত্নীতলা) আসনে বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থী শহীদুজ্জামান সরকার।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাতে জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. গোলাম মাওলা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, প্রতিদ্বন্দ্বী চারজন প্রার্থীর মধ্যে নৌকার বিজয়ী প্রার্থী মো. শহীদুজ্জামান সরকার পেয়েছেন এক লাখ ১২ হাজার ৬৯৪ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী এইচ এম আক্তারুজ্জামান আলম ট্রাক প্রতীকে পেয়েছেন ৬৯ হাজার ৪৮৩ ভোট।

জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী পেয়েছেন তিন হাজার ৭০৮ ভোট। অন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মেহেদী মাহমুদ রেজা ঈগল প্রতীকে পেয়েছেন এক হাজার ৩৮৬ ভোট। নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ৫৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

নওগাঁর জেলা প্রশাসক ও জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা গোলাম মওলা বলেন, গত ৭ জানুয়ারীর মত এই নির্বাচন যথেষ্ঠ সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ করতে সর্বাত্মক ব্যবস্থা গ্রহণ করার কারণে শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরিস্থিতি খুবই সন্তোষজনক ছিল। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন সমন্বিতভাবে কাজ করছে।

নওগাঁর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জেলার এই দুই উপজেলাকে নিরাপত্তার চাঁদরে ঢেকে ফেলা হয়েছিল। কারণ গত ৭ জানুয়ারী সারাদেশের সাথে পুরো জেলায় এক সাথে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সে তুলনায় মাত্র একটি আসনে নির্বাচন হওয়ায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনেকগুণ বেশি গ্রহণ করা সহজ হয়েছিল। প্রতিটি কেন্দ্রে ৪ জন তরে পুলিশ সদস্য রাখা হয়েছিল। প্রতিটি কেন্দ্রেই মোবাইল টিম নিয়োজিত ছিল। প্রতিটি ইউনিয়নে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছেন। এই দুই উপজেলায় মোট ৮ প্লাটুন বিজিবি সদস্য নিয়োজিত ছিল। এ ছাড়াও প্রয়োজনীয় সংখ্যক আনসার সদস্যও নিয়োজিত ছিল। এক কথায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৭ জানুয়ারি এই আসনে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। তবে একজন বৈধ প্রার্থী মারা যাওয়ায় ভোটের প্রক্রিয়া বাতিল করে পরবর্তীতে নতুন করে তফসিল দেয় নির্বাচন কমিশন।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইজে





Source link

Related posts

চীনে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত অন্তত শতাধিক

মামুন খান

নেটিজেনদের কটাক্ষের মুখে ঐন্দ্রিলা

মামুন খান

দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় পল্লীবন্ধুর কর্মীরা রাজপথে থাকবে: মিলন

মামুন খান