Home বাংলাদেশ আগামী নির্বাচনে ফাইনাল খেলা এখন সেমিফাইনাল চলছে

আগামী নির্বাচনে ফাইনাল খেলা এখন সেমিফাইনাল চলছে

39
0

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমাদের রিজার্ভ কমে গিয়েছিলো। এখন আবার রিজার্ভের গতি ফিরে এসেছে। ৫ মাসের আমদানি করার মতো এখনো রিজার্ভ আমাদের আছে। মানুষ কষ্ট করে এমন কোনো মেগা প্রকল্প শেখ হাসিনা গ্রহণ করবে না। বিশ্ব সঙ্কট, তবুও ভয় পাইনি আমরা। দেশে খাবার মজুদ আছে। দেশ আবার ঘুরে দাঁড়াবে। আমাদের লক্ষ্য উন্নয়নশীল রাষ্ট্র। আমার সেই লক্ষে এগিয়ে যাচ্ছি। খেলা হবে, খেলা হবে, এখন সেমিফাইনাল খেলা হচ্ছে, আগামী ডিসেম্বর অথবা জানুয়ারি মাসে খেলা হবে ফাইনাল খেলা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গীবাদ সন্ত্রাস, দুর্নীতি, ভোটচোর ও লুটপাটের বিরুদ্ধে ফাইনাল খেলায় আমারই বিজয়ী হবে। গতকাল স্থানীয় সরকারি হাই স্কুল মাঠে আয়োজিত মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিদেশি দূতাবাসের সমালোচনা করে সেতুমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের সহিংসতা নিয়ে কিছু বিদেশি দূতাবাস ক্ষোভ প্রকাশ করেন, উদ্বেগ্ন হয়। প্রশ্ন হলো পুলিশের ওপর যখন হামলা হয়, পুলিশ যখন মার খেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে তখন কোথায় যায় মানবাধিকার। কিসের মানবাধিকার? যুক্তরাষ্ট্রকে উদ্দেশ্যে করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনাদের দেশে প্রতিদিন নারী ধর্ষিত হচ্ছে, তখন কি মানবাধিকার লংঘর হয় না ? তখন আপনার নিরব থাকনে কেন?

মন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপির সাত সংসদ সদস্য পদত্যাগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির সাতজন জাতীয় সংসদের মধ্যে পাঁচ জন পদত্যাগ করেছেন, স্পিকার গ্রহণও করেছেন। বিএনপি সদস্যদের পদত্যাগ হচ্ছে মহাসিন্ধুর থেকে বিন্দুর মতো। আওয়ামী লীগের ৩০১ সংসদ সদস্য রয়েছে।
এছাড়া জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কাস পার্টি, তরিকত ফেডারেশন, বিকল্পধারার সংসদ সদস্য রয়েছে। তারা তো পদত্যাগ করেনি। এর জন্য সংসদ অচল হয়ে পড়বে এটা ভাবার কোনো কারণ নেই। এই ভুলের জন্য বিএনপিকে অনুতাপ করতে হবে।

সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, ১০ তারিখ তো চলে গেল কোথায় বিএনপির নেতারা। বেগম জিয়া তো ক্ষমতা দখল করতে পারল না, উনি যেখানে ছিল সেখানেই আছে। তারেক জিয়া তো মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে গিয়েছে। দেখতে দেখতে ১৫ বছর চলে গেল। তারেক রহমান আসবে কোনো বছরে? মানুষ বাঁচে কয় বছর।

সড়ক মন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি গণতন্ত্রের কথা বলে বলে গলা ফাটায় কিন্তু তাদের ঘরে গণতন্ত্র নেই। বিদেশি কূটনীতিকদের বলবো তাদের জিজ্ঞেস করেন তাদের সম্মেলন কবে হয়েছে। ‘সংবিধান সংশোধনের দিবাস্বপ্ন ভুলে যান। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ভুলে যান। তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর হবে না।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ এতা দুর্বল দল নয় যে ধাক্কা দিলে পরে যাবে! আওয়ামী লীগের শিকর অনেক গভীরে। সহজে এই দলকে উপরে ফেলা সম্ভব নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন। এই দলকে কেউ ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিবে ১০ ডিসেম্বর তা প্রমাণ হলো! সরকারি হাই স্কুল মাঠে আয়োজিত সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দীনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আব্দুস সালামের পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ এমপি, ডা. মোস্তাফা জালাল মহিউদ্দিন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি, মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয় এমপি, মানিকগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম এমপি, কেন্দ্রীয় নেতা সাঈদ খোকন, অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম, সামছুন নাহার চাপা প্রমুখ।

দ্বিতীয় অধিবেশনে সেতুমন্ত্রী আগামী তিন বছরের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে পুনরায় অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দীন ও অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম এবং সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদের নাম ঘোষণা করেন।